6 Habits of unsuccessful person. কিভাবে সফলতা অর্জন করা যায়/জীবনে সফল হওয়ার উপায়/জীবন কিভাবে সুন্দর করা যায় এমন ৬টি গুরুত্বপূর্ন টিপস।

 

অসফল মানুষদের ৬ টি অভ্যাস যা আপনার জানা দরকার । 6 Habits of Unsuccessful people in Benefit.

Habits can make you, Habits can Break you.অর্থাৎ অভ্যাস হল এমন একটি মূল্যবান সম্পদ,যেটা আমাদের জিবনকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে পারে আবার এমনকি ধ্বংসও করতে পারে।আমরা বিভিন্ন ভিডিওতে বা পত্রপত্রিকাতে সফল মানুষদের অভ্যাস গুলো সম্পর্কে আলোচনা করতে দেখি।কিন্তু অসফল মানুষদের সফল না হওয়ার পিছনে কোন কোন অভ্যাস দায়ি থাকে তা নিয়ে কখনও আলোচনা হয় না।তাই আমরা আজকে আলোচনা করব অসফল ব্যক্তিরা কোন ৬ টি খারাপ অভ্যাসের কারনে সফলতা পায়না তা নিয়ে।

6 Habits of unsuccessful person. কিভাবে সফলতা অর্জন করা যায়/জীবনে সফল হওয়ার উপায়/জীবন কিভাবে সুন্দর করা যায় এমন ৬টি গুরুত্বপূর্ন টিপস।
6 Habits of unsuccessful person

কনটেন্ট টি আপনি পড়ছেন তার মানে আমি ধরে নিতে পারি, আপনার মাঝে সফল হওয়ার প্রবল ইচ্ছা রয়েছে।কিন্তু কোন অজানা কারনে আপনি সফল হতে পারেন নি।তো কনটেন্ট টি সম্পূর্ন পড়তে থাকুন,আর চিহ্নিত করুন এই ৬ টি খারাপ অভ্যাসের মাঝে কোনটি কোনটি আপনার মাঝে আছে এবং সেগুলো পরিবরর্তন করে আপনিও সফল হতে পারবেন।তো চলুন তাহলে  শুরু করা যাকঃ-

১.তারা কখনও কল্পনাও করেনি যে তারা ধনি হতে পারবে।

আসলে আমাদের মানসিকতাই এরকম হয়।কারন ছোট বেলা থেকেই আমাদের মাথায় ডুকিয়ে দেয়া হয় যে, বেশি টাকা পয়সা ভালো নয়,বড় স্বপ্ন দেখা উচিৎ নয়,ক্ষমতা অনুযায়ি স্বপ্ন দেখা উচিৎ।আর এসব কারনেই আমাদের মাঝে টাকা পয়সা নিয়ে নেগেটিভ ধারনা জন্ম নেয়,তাড়া সারা জিবন টাকা পয়সার অভাবে খারাপ অবস্থার মধ্য দিয়েই জিবন অতিবাহিত করে।তা স্বত্তেও তারা টাকাকে খারাপ জিনিস ভাবে।কি আজব এ দুনিয়া!!!এই মানুষগুলো সামান্য টাকার জন্য দিনে ১০ ঘন্টা কঠোর পরিশ্রম করবে ,তা স্বত্তেও টাকাকে খারাপ বলবে।তারাই বলবে বেশি টাকা ভালো নয়,টাকাই সমস্ত সমস্যার মূল কারন।যদি আপনাকে  কেউ এমন বলে যে বেশি টাকা ভালো নয়,তবে তাকে জিজ্ঞাসা করবেন “বিষয়টি যদি তাই হয় তাহলে সামান্য কয়টা টাকার জন্য সে এত পরিশ্রম কেন করে,সকাল থেকে রাত অবধি কে চাকরি করে”??যদি তাদের বাবা মা অথবা সন্তানরা অস্বুস্থ হয় তাহলে কি সরকারি হাসপাতালে ধাক্কা থেতে পছন্দ করবে নাকি সবচেয়ে ভালো জায়গায় চিকিৎসা করাবে।এখন আপনি হয়ত আমাকে প্রশ্ন করতে পারেন,”সফল হওয়ার প্রধান মাধ্যম কি টাকা পয়সা”???উত্তরে আমি বলব ”অবশ্যই না”।কিন্তু টাকা পয়সা আপনাকে ঐ সমস্ত জিনিস দিতে পারে,যা আপনাকে সফল হতে বিশেষভাবে সহয়তা করবে।

২)Procrastination/ঢিলেমি করা।

অধিকাংশ মানুষ বেশি বেশি বলেন।যেমনঃ-আমি এটা করব,আমি ওটা করব,আমি এটা পারি,আমি ওটা পারি,কিন্তু তারা বাস্তবে এটা করেন না।শুধুমাত্র তারা ভাবতে থাকেন, Procrastinate করতে থাকেন,আসলে এটা নিয়ে তারা কোন প্লান বা সিদ্ধান্ত স্থির করে না,শুধুমাত্র ফাকা বকতে থাকেন।তো শুধুমাত্র চিন্তা করলে হবে না,মুখে বলেও কোন লাভ হবে না,মূলত আপনাকে ওটা করতে হবে,বাস্তবে রুপ দিতে হবে।শুরু করলেই আপনার সামনে বিভিন্ন রাস্তা খুলে যাবে।তাই আপনার কাছে ছোট্ট একটা অনুরোধ আর ঢিলেমো নয় এবার শুরু করুন।

৩)তারা শেখা বন্ধ করে দেয়।

যদি তাদেরকে কেউ নতুন কিছু বলে তারা এমন ভাবে তাকায় বা এমন ভাব নেয় মনে হয় যেন সে সব জানে ।তারা মনে করে কোন কিছু না জানা মহাপাপ,এতে তাদের মিথ্যা স্মার্টনেস নষ্ট হবে।কিন্তু এমনটা নয় একটা মানুষের পক্ষে সবকিছু জানা সম্ভব নয়।আমরা অনেকেই মনে করিিআমি অনেক পড়াশুনা করেছিিআমার অনেক বড় বড় ডিগ্রি আছেেআমি সব জানি।কিন্তু সময় পরিবর্তনের সাথে সাথে নিজেদের আপডেট করা প্রয়োজন।নিত্য নতুন জ্ঞানে সমৃদ্ধ হওয়া প্রয়োজন।খোজ নিলে জানতে পারবেন বিল-গেটস,ওয়ারেন-বাফেট তারা এখনো প্রতিদিনই বই পড়েন,নিজেকে আপডেট রাখার জন্য।সুতরাং সফল হওয়ার জন্য শেখা বন্ধ করলে চলবে না ।

৪)টিভি দেখা।

এই অভ্যাসটি আপনাকে কখনও সফল হতে দিবে না।আপনি যে কোন সফল ব্যক্তিকে দেখুন তারা কখনও অযথা টিভির সামনে বসে থাকেন না।বরং তারা নতুন কিছু করার জন্য লেগে থাকেন অথবা নতুন কিছু শিখতে থাকেন।সফল ব্যক্তিরা যদি টিভি দেখেন তাহলে তাদের টারগেট ফিক্সড হয়।নির্দিষ্ট কোন সিনেমা বা নির্দিষ্ট  খবর অথবা  কাজের সাথে সম্পর্কিত কোন বিষয় দেখেন।এরপর টিভি বন্ধ করে দেন ।কিন্তু অসফল ব্যক্তিরা যাতে কাজ না করতে হয় সেজন্য টিভি দেখে,টিভি দেখার জন্য তারা বাহানা করে বলে ”সারাদিন অফিস করে আমি ক্লান্ত , টানা চারদিন কাজ করে আর ভাল লাগছে না আজ টিভি দেখব অথবা আজ কোন কাজ নেই ,নেই কোন পড়াশুনা,তাই আজ সারাদিন কমেডি বা নাটক দেখব”।এই বাহানা করে ঘন্টার পর ঘন্টা কোথা দিয়ে চলে যায় তারা বুজতেও পারে না ।তাই আজ থেকে অযথা  টিভি দেখা বন্ধ করে,নিজের প্রয়োজনে ,নিজেকে ইমপ্রুভ করার জন্য  টিভি দেখুন।


৫)সঠিক খাবার না খাওয়া।

এটি আপনার অসফলতার একটি কারন হতে পারে।যদি আপনি খাবার হিসাবে ফাস্টফুড,জাঙ্কফুড এমন কোন খাবার খান বা এমন কোন খাবার খান যেটা আপনাকে মোটা করে,অলস বানায়,তাহলে সমস্ত সময় আপনি ঐই গুলো নিয়ে পড়ে থাকবেন ।অলসতা কাটিয়ে উঠার চেষ্টা করবেন,তারপর যদি আপনার হাতে সময় থাকে তাহলে আপনি সফল হওয়ার চেষ্টা করতে থাকবেন,নাহলে বিছানায় শুয়ে নিজের রোগ সারানোর উপায় খুজতে লাগবেন।ব্যাস এছাড়া এর বেশি কিছু করতে পারবেননা।আপনি যেকোন সফল ব্যক্তিকে দেখুন তারা সবসময়  খাবারের দিকে বিশেষ নজর দেয় ।তারা সর্বদা এমন খাবার খান যেটা তাদের সবসময় শক্তিসনঞ্চার করে,স্বাস্থ্যবান রাখে।তাই দিনে বেশির ভাগ সময় সুস্থ্য থাকার জন্য,কোয়ালিটিফুল সময় কাটানোর জন্য জাঙ্কফুড,ফাস্টফুড এই ধরনের খাবার ত্যাগ করতে হবে।

৬)একটানা কোন কাজ না করা।

সফল এবং অসফল ব্যক্তিদের মধ্যে এটা একটি বড় পার্থক্য।সফল ব্যক্তিরা একটানা চেষ্টা করতে থাকে,তারা কোন কাজের মাঝপথে ছেড়ে দেয় না।উদাহরন হিসাবে বলা যায়ঃ-অনেক মানুষ আছেন তাদের হঠাৎ মনে হলো তাদের ভুড়িটা অনেক বেড়ে গেছে।এবার সকালে দৌড়ানো দরকার,শরীর চর্চা করা দরকার।পরদিন থেকে দৌড় শুরু করলেন।কিন্তু তাদের মাঝের বেশিরভাগ মানুষ দৌড়ানো ছেড়ে আগের সেই পুরানো রুটিনে ফিরে আসেন,আবার অনেকে ডায়েট শুরু করেন,স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খেতে শুরু করেন।কিন্তু সেটাও বেশিদিন ধরে রাখতে পারে না,পুনরায় তারা জাঙ্কফুড,ফাস্টফুড খেতে শুরু করে দেন।তাদের  এই মাঝ পথে হাল ছেড়ে দেওয়ার অভ্যাস প্রতিটা ক্ষেত্রেই প্রতিফলিত হয়,সেটা টাকা পয়সা সেভিংস করা হোক বা নতুন কাজ শুরু করার ক্ষেত্রেই হোক প্রথম কিছুদিন চূড়ান্ত আগ্রহ নিয়ে কাজ শুরু করে থাকে।তারপর কোথায় যে ফুস করে আগ্রহ উড়ে যায় তা কেউ বলতে পারে না ।


এই ছিল ৬টি অভ্যাস যেগুলো আমাদের সফল হতে দেয় না । এর মাঝে কোন কেন অভ্যাস আপনার মাঝে আছে তা কমেন্ট করে আমাদের জানান এবং প্রতিজ্ঞা করুন ঐ অভ্যাস ত্যাগ করে জিবনে সফল হওয়ার জন্য অগ্রসর হবেন।

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post