ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব 2021?/How to learn freelancing in Bangladesh?

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব 2021?

ফ্রিল্যান্সিং করে আয়, কথাটি শুনলে কিছু মানুষ অবিশ্বাস করে এমং মনে করে এটি একটি মানুষকে ঠকানোর বা প্রতারনার ব্যবসা।কিন্তু আবার এমনও মানুষ আছে যারা দিনের পর দিন”ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব ” প্রশ্নটির উত্তর খুজে চলেছে।অনলাইন এর মাধ্যমে যেসব কাজ করা হয় তাকে ফ্রিল্যান্সিং বলা হয় এবং যে ব্যক্তি ফিল্যান্সিং কাজ গুলো সম্পাদন করে তাকে ফ্রিল্যান্সার বলা হয়।আমাদের দেশে প্রায় ৬৫০০০০ ফ্রিল্যান্সার রয়েছে এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী তারা বছরে ৫০ কোটি ডলার আয় করছেন।ফ্রিল্যান্সারদের মধ্যে অধিকাংশই ছাত্রছাত্রী।আজকে ব্লগে আমরা freelancing কি?এবং নতুনরা কিভাবে শুরু করতে পারবে? এবিষয়ে বিস্তারিত  আলোচনা করব।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব 2021?/How to learn freelancing in Bangladesh?

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব 2021

আমাদের আজকের জানার বিষয় গুলোঃ-

১)freelancing কি?(What is freelancing?)

২) freelancing এর কাজগুলো কী কী??(What are the tasks of freelancing ??)

৩) লেখাপড়া বা চাকরির পাশাপাশি  কী freelancing করা যাবে?(What freelancing can be done in addition to education or job?)

৪) freelancing করে কিভাবে টাকা আয় করা যায়?(How to make money by freelancing?)

৫) freelancing করে মাসে কত টাকা আয় করা যায়?(How much money can be earned per month by freelancing?)

৬)আমি কি freelancing করতে পারব?(Can I do freelancing?)

৭) freelancing  শিখতে কতদিন সময় লাগবে?(How to learn time for freelancing?)

freelancing কি?(What is freelancing?)

সহজভাষায় ফ্রিল্যান্সিং বলতে এমন একটি কাজকে বুঝায় যেখানে একজন মানুষ যেকোন জায়গায় বসে কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট ব্যাবহার করে অনলাইনের মাধ্যমে যে কাজ(ডেটা বা ফাইল আদান প্রদান)করে থাকে।ফ্রিল্যান্সিং বলতে সুধু এক দেশ অন্যদেশে কাজ করা বা ফাইল আদান প্রদান করাকে বুঝায় না।ফ্রিল্যান্সিং কাজটি দেশের ভিতরে এমনকি যিনি কাজ করছেন এবং যিনি কাজটি দিচ্ছেন তার দুরুত্ব এক রুম থেকে অন্য রুম হয় এবং তারা কাজটি যদি অনলাইলনের মাধ্যমে করে থাকে তবে সেটিও ফ্রিল্যান্সিং বলে বিবেচিত হবে।

freelancing এর কাজগুলো কী কী??(What are the tasks of freelancing ??)

আমাদের অনেকেরই মনে প্রশ্ন জাগে যে,ফ্রিল্যান্সাররা কি ধরনের কাজ করে বা ফ্রিল্যান্সিং বলতে কী ধরনের কাজকে বুঝায়।ফ্রিল্যান্সিং এর কাজগুলো মূলত অনলাইন ভিত্তিক হয়ে থাকে।ফ্রিল্যান্সিং এ কাজের কোন শেষ নেই।অনলাইন ভিত্তিক যে কোন কাজ ফ্রিল্যান্সিং এর মধ্যে পড়ে।হতে পারে সেটা,ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট,অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট,গ্রাফিক্স ডিজাইন,ভিডিও এডিটিং,ছবি এডিটিং ,সিপিএ মার্কেটিং,সার্চ ইঞ্জিন অপটি মাইজেশন ইত্যাদি।এই কাজগিুলো কোন একটি মার্কেট প্লেসে বায়ার দিয়ে থাকে এবং ফ্রিল্যান্সাররা সেই কাজগুলো চুক্তির মাধ্যমে করে দিয়ে থাকে।

লেখাপড়া বা চাকরির পাশাপাশি  কী freelancing করা যাবে?(What freelancing can be done in addition to education or job?)

আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা চাকরি করে কিংবা পড়াশুনা করছে।যারা চাকরি বা লেখাপড়া করে তাদের প্রায় সবারই মনে একটি প্রশ্ন জাগে যে তারা লেখাপড়া  বা চাকরির পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবে কিনা?হ্যা আপনি আপনার  লেখাপড়া বা চাকরির পাশাপাশি কাজটি করতে পারেন এবং এর ফলে আপনার কিছু বাড়তি আয় হবে।তবে একটি বিষয় মাথায় সবসময় রাখবেন সেটি হল আপনি কখনই আপনার মূল কাজের ব্যাঘাত ঘটিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করবেন না।আপনার মূল কাজ বলতে চাকরিজীবিদের চাকুরি এবং ছাত্রছাত্রীদের পড়াশুনাকে বুঝানো হয়েছে।ফ্রিল্যান্সিং জগতে আপনি কোন ক্লাসে পড়েন বা কী কাজ করেন সেটা কোন বিষয় না।আপনি চাইলে যেকোন সময়ে ফিল্যান্সিং শুরু করতে পারেন।

freelancing করে কিভাবে টাকা আয় করা যায়?(How to make money by freelancing?)

ফ্যিল্যান্সিং এর যে কোন কাজ শিখার পর বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে ফ্যিল্যান্সিং এর কাজগুলো সম্পূর্ন করার মাধ্যমে বায়ারের সাথে আপনার চুক্তি অনুযায়ী বায়ার আপনাকে টাকা বা ডলার দিবে।উদাহরন হিসাবে আপনি মনে করুন আপনি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার,বা ফটো এডিটিং এর কাজ পারেন তো আপনি ফ্রিল্যান্সিং এর একটি মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট খোলার পর একটি বায়ার ফটো এডিটিং করার জন্য কাজ দিয়ে রেখেছে,তখন আপনি ওই বায়ারের সাথে কথা বলে কিরকম কাজ করতে হবে বুঝে নিলেন।এবং কাজটি করার জন্য আপনার সাথে তার ৫০ ডলার চুক্তি হয়েছে।এরপর যখন আপনি কাজটি শেষ করে তার কাছে জমা দিবেন তখন বায়ার আপনার একাউন্টে ৫০ ডলার পাঠিয়ে দিবে।প্রসঙ্গত যিনি যারা মার্কেটপ্লেস গুলোতে কাজ প্রদার করে তাকে বা তাদেরকে বায়ার বলা হয়।আর যে ওয়েবসাইটে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজগুলো দেওয়া হয় বা পাওয়া যায় তাকে মার্কেটপ্লেস বলে।এমন কয়েকটি মার্কেটপ্লেস হলো www.fiver.com. www.upwork.com www.freelancer.com

আরও পড়ুনঃ-কিভাবে সিপিএ মার্কেটিং শুরু করব??

freelancing করে মাসে কত টাকা আয় করা যায়?(How much money can be earned per month by freelancing?)

আমরা বেশিরভাগ মানুষ এই প্রশ্রটি করে থাকি যে freelancing করে মাসে কত টাকা আয় করা সম্ভব।কিন্তু এই প্রশ্নটি সম্পূর্ন ভিত্তিহীন।কারন একজন ব্যবসায়ী যেমন নির্ভুলভাবে বলতে পারবে না সে মাসে কত টাকা ইনকাম করে,তেমনি একজন ফ্রিল্যন্সারও সঠিকভাবে বলতে পারবে না সে কত টাকা  freelancing করে আয় করে।কারন একজন সফল ফ্রিল্যান্সার মাসে প্রচুর টাকা আয় করে যা আপনি জানলে হয়ত বিশ্বাসই করতে পারবেন না।সত্যিকার অর্থে একজন ফ্রিল্যান্সার মাসে কমপক্ষে ১০০০০ টাকা থেকে ১০০০০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করে থাকেন।তবে তারা যদি টিম হিসাবে কাজ করে থাকেন তবে আরও বেশি আয় করতে পারেন এমকি সে আয় দ্বিগুনও হতে পারে।তবে একা কাজ করলে সে মাসে ১০০০০ থেকে ৪-৫ লাখ টাকা আয় করা তার পক্ষে অসম্ভব কিছু নয়।আর সেজন্য অবশ্যই তার সময়,পরিশ্রম এবং যথেষ্ট ধৈর্য্য থাকতে হবে।তবে একটি সত্য কথা একজন ফ্রিল্যান্সার প্রতিমাসে একই রকমভাবে কাজ করতে পারনা।কোন মাসে তারা সামান্য এবং কোন মাসে তার প্রত্যাশার চেয়েও অনেক বেশি আয় করে থাকেন।

আমি কি freelancing করতে পারব?(Can I do freelancing?)

এই প্রশ্নটি আপনার মসে জাগতেই পারে যে আপনি ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন কিনা বা একজন ফ্রিল্যান্সার হতে হলে আপনার কী কী দক্ষতা থাকতে হবে?যদি এমন প্রশ্ন আপনার মনে জেগে থাকে তবে আপনি জেনে নিন ফ্রিল্যান্সিং করতে তেমন কোন দক্ষতার প্রয়োজন হয়না।আপনি কোন ক্লাসে পড়ছেন বা আপনার বয়স কত?এমন কিছু ফ্রিল্যান্সিং করতে কাজে লাগে না।তবে আপনার ভিতর কিছু কিছু গুন থ্ক্ আবশ্যক।

যেসক গুন/দক্ষতাগুলো অবশ্যই আপনার মাঝে থাকতে হবেঃ-

১)ধৈর্য্যঃ- প্রথমেই আপনাকে ধৈর্য্যশীল ব্যক্তি হতে হবে।কারন একজন ফ্রিল্যান্সারের প্রতেকটি কাজের প্রতি ধৈর্য্যর পরিক্ষা দিতে হবে।কাজ শিখতে এবং কাজের প্রতি ধৈর্যশীল হতে হবে তবেই আপনি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ-কিভাবে সফলতা অর্জন করা যায়/জীবনে সফল হওয়ার উপায়

২)কম্পিউটার চালনোর মত বেসকি জ্ঞান আপনার থাকতে হবে।যেমনঃ- কম্পিউটার অন করা,অফ করা,ইন্টারন্টে সংযোগ দেওয়া,এছাড়া Microsoft Office ,Microsoft Excel ,Microsoft Power point,এসবি বিষয়ে একটু সাধারন জ্ঞান থাকতে হবে।

৩)ইংরেজিতে আপনাকে মুটামুটি কথা বলার মত দক্ষতা থাকতে হবে।কারন কাজ করার  জন্য আপনাকে ইংরেজিতে বায়ারের সাথে কথা বলতে হবে।ফ্রিল্যান্সিং জগতে বেশিরভাগ(প্রায় ৯৮%) বায়ার দেশের বাহিরের হয়,তারা তো আর আপনার বাংলা ভাষা বুঝবেনা।

 freelancing  শিখতে কতদিন সময় লাগবে?(How to learn time for freelancing?)

এটি একটি ভূল প্রশ্ন,যা অনেকেই করে থাকেন।কারন ফ্রিল্যান্সিং একটি পেশা,তাই এটাকে শিখা যায়না।প্রশ্ন হবে এমন যে আমি ফ্রিল্যান্সার হিসাবে যে কাজটি করব সেটি শিখতে কতদিন সময় লাগতে পারে??তবে এখানে আপনি কি কাজ করবেন বা কোন কাজটি আপনি শিখতে ইচ্ছুক সেটা আগে নির্বাচন করতে হবে!!তাই বলা যায় আপনি কী কাজ শিখবেন সেটার উপর নির্ভর করে আপনার কতদিন সময় লাগবে?এবং সেই সাথে সময়ের ব্যাপারটা আপনার শিখার উপরও নির্ভর করে থাকে।আপনি প্রতিদিন যত বেশি সময় দিবেন তত তাড়াতাড়ি সেই কাজটি শিখতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ২০২১ সালের নতুন অ্যাপ নতুন অফারে একাউন্ট করলেই ১০০০ টাকা বোনাস!!!

সুতরাং আমি আশা করছি ”ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব”এই বিষয়ে সমস্তকিছু সহজভাবে বুঝতে পেরেছেন।তাই যদি আপনার ক্যারিয়ার হিসাবে বেছে নিতে চান তাহলে অবশ্যই একটি বিষয়ে কাজ শিখে freelancing শুরু করতে পারেন।আর এই ব্লগটি থেকে যদি আপনি সামান্য কিছু জানতে পারেন বা আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তবে এই বিষয়টি আপনার বন্ধুদের জানাতে ভুলবেন না।আপনার বন্ধুকে বিষয় জানাতে অবশ্যই তাদের মাঝে ব্লগটি শেয়ার করবেন।

 

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post